1. ridowan2424@gmail.com : ridua2z :

November 27, 2020, 2:32 am

গ্রাফিক্স ডিজাইন,যোগ্যতা ও কর্মক্ষেত্র

গ্রাফিক্স ডিজাইন,যোগ্যতা ও কর্মক্ষেত্র

আজ আমরাকথা বলব গ্রাফিক্স ডিজাইন,যোগ্যতা এবং এর কর্মক্ষেত্রের বিবরন নিয়ে। যারা কম্পিউটার নিয়ে একটু হলে জানেন তারা আশাকরি ইতিমধ্যেই বুঝেগেছেন আজ আমরা কি নিয়ে কথা বলব… চলুন তাহলে এবার বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক।
Graphic design কি:
আপনার কি ক্রিয়েটিভ কিছু করতে মন চায়! সময় পেলেই মাঝে মাঝে কম্পিউটারের পেইন্ট টুলস, ফটোশপ, ইলাস্ট্রেটর নিয়ে গাছ, পাখি, ফুল, ফল, বাড়ির দৃশ্য বা কারো নাম বা ছবি নিয়ে কাজ শুরু করে দেন? পার্ট-টাইম বা ফুল টাইম কাজ খুজছেন? অথবা অনলাইন মার্কেটপ্লেসে কাজ করে অপেক্ষাকৃত বেশি আয় করতে চান?তাহলে ভেবে চিন্তে নেমে পড়–ন গ্রাফিক্স ডিজাইনে।যদি অন্যান্য সব চাকরির সাথে তুলনা করেন তাহলে অন্য সব চাকরি থেকে গ্রাফিক্স ডিজাইন পেশাটি সবচেয়ে নিরাপদ ও ঝামেলা বিহীন। নিরাপদ ও ঝামেলাবিহীন বলার কারণ হলো অন্যান্য সব পেশার বিপরীতে গ্রাফিক্স ডিজাইনারের কোনো কাজের অভাব হয় না। এটা একটি সন্মানজনক পেশাও। তবে বর্তমানে অনেকেই এ পেশাটি নিয়ে চিন্তিত থাকেন। কিভাবে এগিয়ে যাবেন, শিক্ষাগত যোগ্যতা কি প্রয়োজন বা একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের বেতন-ই বা কতো? তাদের জন্য এ লেখা। লেখাটির মাধ্যমে ক্যারিয়ার হিসেবে গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে চাইলে যে বিষয়টি আগে জানতে হবে সেটি জানানো চেষ্টা করেছি।
ডিজিটাল চিত্রলেখ বিষয়ক শিল্পকর্মকেই গ্রাফিক্স ডিজাইন বা Graphic design বলা হয়ে থাকে।তবে সহজভাবে বলতে গেলে টেক্ট বা নকশা ব্যবহার করে সুন্দর এবং মানসম্মত চিত্রকর্ম তৈরি করাকে গ্রাফিক্স ডিজাইন বলা হয়ে থাকে।আরও সহজভাবে বলতে গেলে বলতে হয় আপনি নিশ্চই প্রথম আলো বা অন্য কোন সংবাদ মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের চিত্র দেখতে পান,বিভিন্ন কোম্পানির এড দেখতে পান ।এই যে চিত্রগুলো আপনি দেখতে পান এই চিত্রগুলোকেই বলা হচ্ছে গ্রাফিক্স ডিজাইন।আগের যুগে যে চিত্রকর্মগুলো শিল্পীরা হাতে একে তৈরি করত এখন সেইসব জিনিস তৈরি করা হচ্ছে কম্পিউটারের কিছু অসাধারন সফটঅয়্যার দিয়ে।এতে করে চিত্রগুলোকে আরও বাস্তবসম্মত করা সম্ভব হচ্ছে।কিছু সময় উপযোগী গ্রাফিক্স ডিজাইন সফটওয়ার হচ্ছে-adobe photoshop cs ,adobe illustrator cs,quark xpress etc.
আপনার মনে প্রশ্ন জাগছে গ্রাফিক্স ডিজাইন আসলে কি! আচ্ছা তার আগে আমাকে বলুন এমন কিছু কি আছে যাতে গ্রাফিক্স ডিজাইন নেই?! সব কিছুতে ডিজাইন আছে, পৃথিবী-পৃথিবীর বাইরে সব কিছুতেই একটা ডিজাইন আছে। তা প্রাকৃতিকভাবে হোক বা কৃতিমভাবে। আপনি হয়ত তা দেখার চেষ্টা করছেন না বা খেয়াল করছেন না। একটু খুজে দেখুন কোন জিনিসটায় ডিজাইন নেই!

এবার আসুন সংজ্ঞায় দেয়ার চেষ্টা করি…নিজের মত করে সংজ্ঞা দিচ্ছি, আসলে গ্রাফিক্স ডিজাইনের সংজ্ঞা এক কথায় দেওয়া সম্ভব নয়..তারপরও চেষ্টা করছি..

” যা কিছু ডিজাইনড সবই গ্রাফিক্স ডিজাইন ”

”একটি ক্রিয়েটিভ প্রসেস যা আর্ট এবং টেকনোলজী এর সমন্বয়ে আইডিয়াগুলো প্রকাশ করে তাকে গ্রাফিক্স ডিজাইন বলে” (আমি আর্ট ও টেকনোলজী …আমার নিজের থেকেও বেশি পছন্দ করি)

বিখ্যাত ডিজাইনার Neville Brody এর মতে”ডিজাইন প্রয়োজনসমূহ, তথ্য এবং কালারের এমন একটি সংশ্লেষন যা এর অংশসমূহের সমষ্টির থেকেও বেশি কিছু তৈরি করে” (তার এই সংজ্ঞার জন্য কয়েকটি আন্তর্জাতিক পুরুষ্কারও পাইছেন…আমি বাংলায় হয়তো ঠিক ভাবটা প্রকাশ করতে পারিনি তবে তিনি এই সংজ্ঞায় অনেক কিছু বোঝাতে চেষ্টা করেছেন)

উপরের সংজ্ঞাগুলো বিশ্লেষন করলে একটা সাধারণ জিনিষ পাওয়া যায় তা হল… গ্রাফিক্স ডিজাইন এমন একটি বিষয় যার মাধ্যমে আপনার মনের ভাব, কিছু প্রয়োজন, তথ্য ও কালারের সমন্বয়ে আর্ট ও টেকনোলজীর সাহায্যে উপস্থাপন করতে পারবেন।

উপরের সংজ্ঞাগুলোয় আসলে টেকনিক্যাল দিকগুলো ফুটে ওঠে যা হয়তো কারো কারো কাছে বুঝতে কঠিন হতে পার…

আরওএকটু সহজ করে দিই..Nothing is better than example…

আপনি হয়তো লোগো ডিজাইন, বিজনেস কার্ড ডিজাইন, ইন্টেরিওর-এক্সটেরিওর ডিজাইনের কথা শুনে থাকবেন

একটা লোগোতে একটা কোম্পানীর বিষয়বস্তু/নাম/বর্ননা/কাজ ইত্যাদি ডিজাইনের মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলা হয়একটা বিজনেস কার্ডে ডিজাইনের মাধ্যমে একজন বিজনেসম্যান এর বিভিন্ন তথ্যগুলো দেওয়া হয়একটা ইন্টেরিওর বা এক্সটেরিওর ডিজাইনে একটা বাড়ি বা প্রতিষ্ঠানের ডিজাইন করা হয়

এরকম উদাহরন আরও দেয়া যায়..আস্তে আস্তে পাবেন এগুলো সবই গ্রাফিক্স ডিজাইন।

বর্তমান বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে গ্রাফিক্স ডিজাইন:
আমরা সাধারনত অপ্রয়োজনীয় কাজে সময় ব্যয় করে থাকি তারপর যখন পিছিয়ে পড়ি তখন করার কিছু থাকে না।অনেক সময় ইচ্ছে করেই কোন কিছুকে গুরুত্ব দেই না।গ্রাফিক্স ডিজাইন ,থ্রি ডি এনিমেশন এর মত বিষয় গুলো আমাদের জানা থাকলে আমরা বেকারত্বের অন্ধকার থেকে রেহাই পেতাম।তখন আমাদের আর হতাশার দীর্ঘশ্বাস ফেলতে হত না।হতাশা কাটাতে আপনার একটি কম্পিউটার+ইন্টারনেট হলেই যথেষ্ট শুধু থাকতে হবে আপনার দৃঢ় সংকল্প তাহলেই আপনি সব বাধাকে পিছনে ফেলে সামনের উজ্বল আলো দেখতে পারবেন।এই মুহুর্তে বাংলাদেশ সহ সারা বিশ্বে গ্রাফিক্স ডিজাইনারের চাহিদা ব্যাপক।তাই আপনি যদি একটু চেষ্টা করেন তাহলে মাত্র কয়েকমাসের ভিতরেই গ্রাফিক্স ডিজাইন আয়ত্বে এনে নিজেকে বদলে দিতে পারেন।একজন ভালমানের গ্রাফিক্স ডিজাইনার মাসে এক-দেড় লক্ষ টাকা ইনকাম করেন এ রকম উদাহরন খুব কম নেই।
কি কাজে লাগে?
বর্তমান যুগ তথ্যপ্রযুক্তির যুগ।তথ্যপ্রযুক্তির এই যুগে আপনি যত আপডেট থাকবেন আপনার জন্য ততই মঙ্গলজনক।আপনি নিশ্চই জানেন বাংলাদেশের বর্তমান বেকারত্ব সম্পর্কে।এই অবস্থায় এটি হতে পারে আপনার জন্য একটি  দারুন উপায়। গ্রাফিক্স ডিজাইন বিভিন্ন কাজে লাগে।যেসব ক্ষেত্রে গ্রাফিক্স ডিজাইনকে কাজে লাগানো যায় তার সম্ভাব্য কিছু বিষয় তুলে ধরার চেষ্টা করছি।
সংবাদপত্র:
Newspaper বা সংবাদপত্র হচ্ছে একটি বিশাল কর্মক্ষেত্র।একটি ভালমানের সংবাদপত্রের প্রতিষ্ঠানে অনেক লোকের একইসঙ্গে কর্মের ব্যবস্থা হয়ে থাকে।একটি সংবাদ পত্রে অনেক ধরনের চিত্রমূলক বা গ্রাফিক্স ডিজাইন সম্পর্কিত কাজ থাকে।যেমন ধরুন কার্টুন,এড,ব্যাঙ্গাত্বক চিত্র ইত্যাদি নানা ধরনের কাজের ক্ষেত্র।সংবাদমাপত্র হল একটি সুবিশাল মাধ্যম তাই এখানকার পেশার সন্মানটাও অনেক বেশী।
Web design:
দিন যাচ্ছে  ওয়েব ডিজাইনিংয়ের জনপ্রিয়তা বাড়ছে।কারন যুগ ধীরে ধীরে মোড় ঘুরাচ্ছে অনলাইনের দিকে।ধীরে ধীরে সব বড় বড় ব্যবসা  প্রতিষ্ঠান,কোম্পানী,শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান তাদের সেবাসমূহ অনলাইনের মাধ্যমে দেশ দেশান্তরে ছড়িয়ে দেবার চেষ্টা করছে।আর এ জন্য তাদের দরকার হচ্ছে একটি সুন্দর ওয়েবসাইট।প্রতিযোগীতায় টিকে থাকতে সবাই তাদের ওয়েবসাইটকে মনমাতানো করার চেষ্টা করছে।আর এ কাজ করার জন্য তাদের দরকার হচ্ছে একজন প্রফেশনাল এবং ভালমানের ওয়েব ডিজাইনার।কাজেই চিন্তা করে দেখুন সারা বিশ্বে কতগুলো প্রতিষ্ঠান রয়েছে এবং প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে।দিন যাচ্ছে ওয়েব ডিজাইনিংয়ের কাজ বাড়ছে।এই সুবর্ন সম্ভাবনাকে অনেকে কাজে লাগাচ্ছে।তাই আপনিও এ সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে পারেন।
Logo ডিজাইন:
Logo ডিজাইন হল বিভিন্ন কোম্পানীর একটি পরিচিতি বা চিহৃ।যেমন- f নামের ডিজাইন করা চিত্রটি দেখলে আমরা বুঝে নিই যে এটি ফেসবুকের চিহৃ।লেগো ডিজাইন একটি খুব দামী পেশা। এটা অনেক সন্মানজনক ও বটে। এই কাজ করে প্রচুর পরিমানে আয় করা সম্ভব।শুধু ভালভাবে এগুলোর ডিজাইন করা শিখলে কাজ পাওয়া সম্ভব।কাজ আপনি ইন্টরনেটেই খুজে পাবেন।শুধু লেগো ডিজাইনের জন্যই আপনি আলাদা মার্কেটপ্লেস খুজে পাবেন।
ম্যাগাজিন:
ম্যাগাজিন সম্পর্কে আমরা কমবেশী অনেকেই জানি। আপনি জেনে অবাক হবেন আমাদের https://a2zbangla.com/ ওয়েবসাইট একটি ম্যাগাজিন। তবে ম্যাগাজিন বলতে প্রধানত পত্রিকারই সংস্করন বোঝানো হয় ।অনেক বড় মানের ম্যাগাজিন আছে।অনলাইন ম্যাগাজিন বলেন আর অফলাইন ম্যাগাজিন বলেন কাজ জানলে দুধরনের ম্যাগাজিনেই আপনি কাজ করতে পারবেন।এতে সন্মান ও অর্থ দুই পাওয়া যায়।কয়েকটি ম্যাগাজিনের নাম হল-সি নিউজ ,মাসিক মদীনা,রস আলো ইত্যাদি।
ফ্রিল্যান্সার মার্কেটপ্লেস:
বর্তমানের আলোচিত বিষয় হল ফ্রিল্যান্সিং।ফ্রিল্যাসিং বাংলাদেশের মূখ উজ্জ্বল করে তুলছে।দিন যাচ্ছে বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সাররা তাদের অবস্থান শক্ত করে তুলছে।ফ্রিল্যান্সিং এর বাজারে Bangladesh এখন একটি উজ্জ্বল নক্ষত্র।আপনি নিজেও ভালভাবে গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে ফ্রিল্যান্সিং এ নিজের ক্যরিয়ার পাকাপোক্ত করে তুলতে পারেন।
উল্লেখ্য যে এ কাজ করে বাংলাদেশী ফ্রিল্যান্সাররা মাসে লক্ষ টাকার বেশী ইনকাম করে থাকে এ উদাহরনও কম নেই।
লোকাল ডিজাইনিং:
আপনি ইচ্ছে করলে আপনার পরিচিতি বাড়িয়ে বিভিন্ন লোকাল কোম্পানীর গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজ করে দিতে পারেন। এতে প্রথমে একটু সময় লাগবে তারপর যখন আপনার জনপ্রিয়তা বেড়ে যাবে তখন আর আপনাকে কেউ ঠেকাতে পারবে না।তখনই দেখবেন যে আপনার চাহিদা বেড়ে গেছে।দিন যাচ্ছে Computer নিয়ন্ত্রিত কাজ বেড়েই চলেছে। তাই আপনার করতে দোষের কি?
কাজের জন্য শিক্ষাগত যোগ্যতা:
Graphic design এমন একটি কাজ যেখানে শিক্ষাগত যোগ্যতা তেমন কোন বড় বিষয় না। এ কাজের মূলকথা হল কাজের যোগ্যতা।তাই এ কাজ ভালভাবে শিখে বিভিন্ন ধরনের কাজে নিজেকে ডেভলপ করাই মূল কথা।তবে আপনাকে যেটুকু লাগবে তা হল ্সকিছুটা ইংলিশ জানতে হবে, কারণ সফটওয়ারের অপশন গুলো ইংরেজীতে থাকে এগুলো আপনাকে ধরতে হবে।
এখন আপনি বলতে পারেন তাহলে কাজ কোথায় শিখব ? খুব সহজ বর্তমান যুগে কাজ শেখার জায়গার অভাব নেই।আপনি অনলাইন অর্থাৎ ইন্টারনেটের মাধ্যমেও শিখতে পারবেন।অথবা আপনার জেলা বা উপজেলায় কোন প্রশিক্ষনকেন্দ্র থাকলে সেখানেও শিখতে পারেন।
সময় দিয়ে পড়ার জন্য ধন্যবাদ। শেয়ার করতে ভুলবেন না

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2019 a2zbangla.com
Customized BY A2zbangla